বৃহত্তর নোয়াখালী সোসাইটি সাধারণ সভা

বৃহত্তর নোয়াখালী সোসাইটি সাধারণ সভা
বিএনিউজ:‘দি গ্রেটার নোয়াখালী সোসাইটি ইউএসএ ইনক’র সাধারন সভা গত ৩০ জানুয়ারী শনিবার অনুষ্ঠিত হয় ব্রুকলীনে সমিতির নিজস্ব অফিসে। সভায় বিগত এক বছরের কার্যবিবরণী পেশ ছাড়াও সংগঠনকে গতিশীল করার লক্ষ্যে আলোচনা করা হয়। সভাপতি মোহাম্মদ রব মিয়ার সভাপতিত্বে মঞ্চে উপস্থিত ছিলেন, সিনিয়র সহসভাপতি নাজমুল হাসান মানিক, ষ্ট্রাষ্টি বোর্ড চেয়ারম্যান হাজী মফিজুর রহমান। শুরুতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন সিনিয়র সহসভাপতি নাজমুল হাসান মানিক। বাষির্ক প্রতিবেদন পেশ ও অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন সাধারণ সম্পাদক জাহিদ মিন্টু। অর্থ ও অডিট রিপোর্ট পেশ করেন অর্থ সম্পাদক মহিউদ্দিন।
প্রতিবেদনের উপর সন্তোষ প্রকাশ ও পরামর্শ দিয়ে বক্তব্য রাখেন, সাবেক সভাপতি সালামত উল্লাহ, সাবেক প্রধান নির্বাচন কমিশনার ও উপদেষ্টা আবু নাসের, উপদেষ্টা খোকন মোশাররফ, মিনহাজ উদ্দিন বাবর, তদন্ত কমিটির চেয়ারম্যান গোলাম সরোয়ার, অডিট কমিটির চেয়ারম্যান সোহেল হেলাল, সাবেক সাধারণ সম্পাদক তাজু মিয়া, কোম্পানীগঞ্জ ওয়েলফেয়ার এসোসিয়েশনের সভাপতি ভিপি বাবুল।
সভায় উপস্থিত সদস্যদের লিখিত প্রশ্নের জবাব দেন সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক।
সভার সার্বিক সহযোগিতায় ছিলেন, সহ সাধারণ সম্পাদক মোহাম্মদ ইউসুফ জসীম, সহ কোষাধ্যক্ষ জামাল উদ্দিন, সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুল মালেক খান, প্রচার সম্পাদক আইনুল ইসলাম সোহেল, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক সালেহ আহমেদ চৌধুরী (রুবেল), দপ্তর সম্পাদক গোলাম কিবরিয়া মিরণ, ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক মাওলানা ইব্রাহীম, কার্যকরী নিবার্হী সদস্য আবুল কালাম আজাদ, মোহাম্মদ লিয়াকত আলী, জাহাঙ্গীর আলম। সহ সভাপতি আবুল বাশার ও কার্যকরী সদস্য মোশাররফ হোসেন (জাহাঙ্গীর) বাংলাদেশে সফর এবং নাজির আহমেদ ভান্ডারী অসুস্থ থাকায় সভায় উপস্থিত থাকতে পারেননি।
সময়ের বিশেষ প্রয়োজনে বর্তমান কার্যকরী পরিষদের উদ্যোগে গঠন তন্ত্রের ধারা ১১.১০ এর আলোকে ধারা নং ৬:৩, ধারা নং ৮:২ এবং ধারা নং ৮:৭ এর পরিবর্ধন, সংযোজন ও পূর্নবিন্যাস করা হলো। যাহা নি¤œ বর্ণিত:-
ধারা ৬:৩ (ক) সর্বশক্তিমান আল্লাহর উপর আস্থা ও বিশ্বাসই হইবে সোসাইটির যাবতীয় কার্যক্রমের ভিত্তি, সেই উদ্দেশ্য সামনে রেখে লং আইল্যান্ড ওয়াশিংটন মেমোরিয়াল পার্কের মুসলিম সেকশন “গার্ডেন নূর”এ-ব্লকের ৪০০ (চারশত) কবরের জায়গা ক্রয় করা হয়। যার মূল্য ৫,০০,০০০ (পাচঁলক্ষ) ডলার। সোসাইটির কোন নিয়মিত সদস্য যুক্তরাষ্ট্রের মৃত্যুবরণ করিলে সোসাইটির ক্রয়কৃত কবরস্থানে দাফন করিতে বাধ্য থাকিবেন এবং কবরের জায়গার মূল্য কর্তন করে বাকী টাকা মরহুমের যোগ্য দাবীদার বা উত্তরসূরীকে প্রদান করা হইবে। উল্লেখ্য যে মরহুমের পরিবার দ্বিমত পোষণ করিলে ও যোগ্য দাবীদার বা উত্তরসূরীকে ৪০০০ (চার হাজার) ডলার প্রদান করা হইবে।
ধারা ৬:৩ (খ) মৃত ব্যক্তির লাশ সৎকারের জন্য বর্তমান অর্থনৈতিক ও সামজিক সাম্য রক্ষার নিমিত্তে এবং সুষম বন্টন নিশ্চিত করার জন্য মৃত্যু সুবিধা বাবদ বর্তমানে প্রচলিত ৩৫০০ ডলার থেকে ডলার ৪০০০ (চার হাজার) ডলারে উন্নীত করা হলো, যাহা ২০১৬ সাল থেকে কার্যকর হবে।
ধারা ৬:৩ (গ) সোসাইটির কোন নিয়মিত সদস্য যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে মৃত্যুবরণ করিলে মরহুমের যোগ্য দাবীদার বা উত্তরসূরীকে যথাযত ভাবে ২৫০০ ডলার প্রদান করা হইবে। যাহা ২০১৬ সাল থেকে কার্যকরী হবে।
ধারা ৮:২ ৬০ বছরের উর্ধ্বে যারা সোসাইটির সদস্য হবেন তাদেরকে নির্ধারিত চাঁদার অতিরিক্ত ৫০০ (পাচঁশত ) ডলার প্রদান করিতে হইবে। যাহা ২০১৬ সাল থেকে কার্যকর হবে। এই সংক্রান্ত অন্যান্য ধারাসমূহ বলবৎ থাকিবে।
ধারা ৮:৭ গঠনতন্ত্রে আইনের ধারা আরোপিত বিধিবিধান শর্ত সাপেক্ষে সোসাইটির অর্থনৈতিক ও সামাজিক সাম্য রক্ষার উদ্দেশ্যে এবং সম্মানীত সদস্যদের সুযোগ- সুবিধা নিশ্চিত করার লক্ষে সোসাইটির ব্যয়ভারের চাহিদার সহিত সম্মানিত সদস্যদের চাঁদার হার সঙ্গতিপূর্ণ করিবার জন্য এবং সেই প্রয়োজন বাস্তবায়নের নিমেত্তে চাঁদার হারে বাৎসরিক ৫০ (পঞ্চাশ) ডলার ধার্য করা হলো। যাহা ২০১৬ সাল থেকে কার্যকর হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *